স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠানের জন্য আইবিএমের প্রযুক্তি

দেশের স্টার্টআপ বা উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য আইবিএম গ্লোবাল এন্টারপ্রেনার কর্মসূচি চালু করল সরকারের তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগ ও বহুজাতিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস মেশিনস (আইবিএম) করপোরেশন। গতকাল মঙ্গলবার আইবিএমের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি করেছে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। ওই মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। লিখিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আইবিএমের এই কর্মসূচির আওতায় স্টার্টআপ ও উদ্যোক্তারা আইবিএম ক্লাউডপ্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারবেন। আইবিএমের প্রতিনিধিদলে ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের চেয়ারম্যান র‍্যান্ডি ওয়াকার। চুক্তি সম্পর্কে আইবিএমের ভাষ্য, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের সঙ্গে অংশীদারত্ব ভিত্তিতে কাজ করতে চায় প্রতিষ্ঠানটি।
কয়েক বছর ধরেই বাংলাদেশে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম বাড়ছে। আইবিএমের বৈশ্বিক কর্মসূচির ফলে স্টার্টআপগুলোর আরও বিকাশ ঘটবে। আগামী এক বছরের জন্য প্রতি মাসে এক হাজার ডলার মূল্যের আইবিএম ক্লাউড ব্যবহারের সুযোগ পাবে প্রতিষ্ঠানগুলো। এ ছাড়া ব্যবসা চালু করতে অবকাঠামো ব্যবহারের সুবিধাসহ স্টার্টআপগুলোকে কোডিং, স্কেলিং ও বাজারে জায়গা করে নিতে সহায়তা করবে। তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, দেশে স্টার্টআপ ও উদ্ভাবনকে এগিয়ে নিতে আইসিটি ডিভিশনের সঙ্গে আইবিএমের সমঝোতা স্মারক গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। আইবিএম দক্ষিণ এশিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক করন বাজওয়া বলেন, আইবিএমের এ কর্মসূচির আওতায় আইবিএম ক্লাউড ব্যবহার করে বাংলাদেশি স্টার্টআপগুলো সহজেই তাদের উদ্যোগগুলোর মাধ্যমে উপার্জনের সক্ষমতা অর্জন করবে। এর মাধ্যমে দেশীয় উদ্যোগগুলো বৈশ্বিক বাজারে স্থান করে নেবে। এতে ১৫০ ধরনের সেবা নেওয়ার সুযোগ থাকবে। বিজ্ঞপ্তি।
Share on Google Plus

About Sadia Afroza

    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment